যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্র্রেলিয়ার মধ্যে শীর্ষ পর্যায়ের আলোচনা

যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্র্রেলিয়া তাদের শীর্ষ পর্যায়ে আলোচনা শুরু করেছে।ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে উত্তেজনা তীব্ররূপ নেয়ার প্রেক্ষাপটে উভয় দেশ একটি অভিন্ন অবস্থান খোঁজার লক্ষ্যে সোমবার এ আলোচনা শুরু করে।
মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মার্ক এসপার ওয়াশিংটনে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী মারিসে পেইন ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লিন্ডা রেনল্ডসকে স্বাগত জানান। দ’ুদিনের এ আলোচনা শেষে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করার কথা রয়েছে।
প্রতিরক্ষা থেকে মানবাধিকার এবং বাণিজ্য বিষয়ে চীনের বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন কঠোর অবস্থান নেয়ার প্রেক্ষাপটে বার্ষিক এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে হিউস্টনে চীনা কনস্যুলেট বন্ধের নির্দেশ দেয়। এর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে চীন চেংদুতে মার্কিন কন্যসুলেট বন্ধ করে দেয়।
প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে অস্ট্রেলিয়া যুক্তরাষ্ট্রের পাশে থেকে বড়ো ধরণের সব লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া দেশটির ডানপন্থী সরকার ট্রাম্প প্রশাসনের সব উদ্যোগকেই সমর্থন দিচ্ছে।
সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া যুক্তরাষ্ট্রকে অনুসরণ করে দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের দাবি প্রত্যাখান করেছে । এছাড়া অস্ট্রেলিয়া পম্পের’র নেতৃত্বে কোভিড -১৯ এর উৎপত্তি নিয়ে আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বানকেও সমর্থন জানিয়েছে।
সমালোচকেরা বলছেন, নির্বাচনের এই বছরে কোভিড -১৯ সংক্রমণ রোধে নিজের ব্যর্থতা ঢাকতে ট্রাম্প চীন- মার্কিন সম্পর্র্কে উত্তেজনা বাড়াচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..