প্রথম লেগে পারফরমেন্সে উজ্জল বোলাররা

চলমান বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ক্রিকেটের প্রথম লেগে বোলারদের পারফরমেন্স ছিলো চোখে পড়ার মত। করোনার কারনে গেল সাত মাস ঘরে বন্দি থাকায়, ভাবা হয়েছিলো বোলারদের ফিটনেস-দক্ষতায় মরিচা পড়বে। কিন্তু না, গত ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া টুর্নামেন্টের প্রথমে লেগে বল হাতে উজ্জল ছিলেন মুস্তাফিজ-রুবেল-এবাদতরা।
করোনার কারনে লকডাউন থাকলেও, ব্যাট হাতে কসরত করার সুযোগ ছিলো ব্যাটসম্যানদের। কিন্তু পূর্ণ রান আপে বল করার সুযোগ ছিলো না বোলারদের।
প্রথম পর্বে ধীর গতির পিচ বোলারদের সহায়তা করলেও, তাদের পারফরমেন্সে খুশী প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।
আজ নান্নু বলেন, ‘চলমান বিসিবি প্রেসিডন্টেস কাপে বোলারদের পারফরমেন্স উৎসাহজনক ছিলো।’
তিনি আরও বলেন, ‘ধীর গতির উইকেটে সহায়তা পেলেও, নিজেদের পরিকল্পনা ভালোভাবে কাজে লাগিয়েছে বোলাররা। ব্যাটসম্যানদের উপর আধিপত্য বিস্তার করাটা বোলারদের প্রধান লক্ষ্য ছিলো এবং তাদের মধ্যে কোন জড়তা ছিলো না।’
তুলনামুলকভাবে ব্যাটসম্যানরা কিছুটা পিছিয়ে এবং তাদের পারফরমেন্স ব্যপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।
পিচ ব্যাটসম্যানদের পক্ষে ছিলো না। বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান বড় শট খেলে আউট হয়ে যায়। পিচের অবস্থা এমন ছিলো যে, বড় শট খেলে কেউই এখানে টিকতে পারেনি, কিন্তু টুর্নামেন্টের প্রথম লেগে ব্যাটসম্যানরা তাই করেছিলো।
দ্বিতীয় লেগে পিচ সহজ হয়েছে এবং ব্যাটসম্যানরা রানের মধ্যে ফিরছে। টানা দুই ম্যাচে মুশফিকুর রহিম সেঞ্চুরি ও হাফ-সেঞ্চুরি করেছেন। তরুণ আফিফ হোসেনও ৯৮ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেছেন।
নান্নু জানান, ব্যাটসম্যানদের ফর্মে ফেরাটা ভালো লক্ষন। তিনি বলেন, ‘ব্যাটিংএর জন্য পিচ আরও সহজ হচ্ছে। ব্যাটসম্যানরা রানের মধ্যে ফিরেছে। কিছু ব্যাটসম্যান কিছু ভালো ইনিংস খেলেছে। এটি খুবই ভালো লক্ষন এবং আমি মনে করি, সময় গড়ানোর সাথে-সাথে ব্যাটসম্যানরা আরও ভালো পারফরমেন্স প্রদর্শন করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

ফেসবুকে আমরা..