ব্রেকিং নিউজ :
করোনা মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রীর ১৮ নির্দেশনা মেনে চলুন : নগর আওয়ামী লীগ কক্সবাজার সৈকতে ভেসে এসেছে মৃত তিমি যুক্তরাষ্ট্রের প্যারিস চুক্তিতে প্রত্যাবর্তন জলবায়ু কূটনীতিতে নতুন গতির সঞ্চার করবে : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে বাইডেনের আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর করতে জন কেরি ঢাকায় ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ১৪ এপ্রিল থেকে সর্বাত্মক লকডাউনের সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে সরকার : সেতুমন্ত্রী রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপ মারা গেছেন বিশ্বব্যাপী একদিনে করোনায় নতুন করে ৬ লাখ ৬৭ হাজার আক্রান্ত মিশরে বালুর নিচে ৩ হাজার বছরের বেশী প্রাচীন নগরীর সন্ধান দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মারা গেছেন ৬৩, আক্রান্ত ৭ হাজার ৪৬২ জন
  • আপডেট টাইম : 11/03/2021 08:57 PM
  • 16 বার পঠিত
ফাইল ছবি।

বাংলাদেশে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির প্রসারে শেখ হাসিনার ভূমিকা অতুলনীয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর) আয়োজিত ‘আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্মেলন ২০২১’ এর গেস্ট অব অনার এর বক্তব্যে মেয়র ব্যারিস্টার একথা বলেন। আজ সায়েন্স ল্যাবে (বিসিএসআইআ’র ঢাকা ক্যাম্পাস) তিন দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক।
ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার পর তা বাস্তবায়নে বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রয়োজনীয় নীতিমালা প্রণয়ন ও এ খাতের বিকাশে প্রণোদনা প্রদানের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশকে অগ্রবর্তী বিশ্বের শামিল করেছেন। এর মাধ্যমে সারাবিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে নতৃন প্রজন্মের জন্য সুযোগের দ্বার অবারিত হলো। আমি বিশ্বাস করি, দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতের অগ্রগতির মাধ্যমে একদিন আমরা নিজস্ব প্রযুক্তিতে সারাবিশ্বে অনুকরণীয় আদর্শ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পাবো। এই সম্মেলন দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতের অগ্রগতিতে নতুন প্রজন্মকে সঠিক পথেই ধাবিত করবে।’
তিনি বলেন, ‘যেকোনো দেশের অগ্রগতিতে গবেষণা ও উন্নয়ন মুখ্য ভূমিকা পালন করে। তাই, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গবেষণা ও উন্নয়নের মাধ্যমে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে এগিয়ে নিতে বলিষ্ট নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন। তার সুদৃঢ় নেতৃত্বে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করেছি।’
নিজ নিজ অবস্থানে থেকে দেশ গঠনে ভূমিকা গ্রহণের আহবান জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র বলেন, স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীতে এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে সামিল হয়েছি। উন্নত দেশে প্রবেশ করতে হলে বিজ্ঞানী ও গবেষকদের বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে। আসুন সকলে মিলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে দেশপ্রেমিক নাগরিকের দায়িত্ব পালন করি।
বিসিএসআইআর-এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. আফতাব আলী শেখের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ডা. আ হ ম রুহুল হক, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ আনোয়ার হোসেন বক্তব্য রাখেন।
বাংলাদেশ, আমেরিকা, কানাডা, জার্মানী, চীন ও ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের এক হাজারেরও বেশি বিজ্ঞানী, গবেষক ও প্রকৌশলীবৃন্দ দেশের ইতিহাসে এই প্রথম স্বশরীরে এবং জুম (ভার্চুয়াল) মাধ্যমে তাদের গবেষণাকর্ম শত শত উপস্থিতির সামনে উপস্থাপন করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...