ব্রেকিং নিউজ :
একনেক বৈঠকে ১০ হাজার ৭শ’ কোটি টাকা ব্যয়সম্বলিত ৭টি প্রকল্প অনুমোদন করোনা নিয়ন্ত্রণে সাংহাইয়ে শত শত ফ্লাইট বাতিল বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ডিজিটাল সুবিধা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে : বাণিজ্যমন্ত্রী আইসিটি সেক্টরে একযোগে কাজ করবে বাংলাদেশ ও ভারত : আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অন্তর্ভুক্তিমূলক জনপ্রশাসন গড়ে তুলতে হবে : ফরহাদ হোসেন শপথ নিলেন নব-নির্বাচিত সংসদ সদস্য মোহাম্মদ হাবিব হাসান ডিএনসিসি মেয়রের সাথে ভারতের রাষ্ট্রদূতের ভার্চুয়াল বৈঠক বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুনীরুজ্জামানের দাফন সম্পন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি: মেহেদির অলরাউন্ড নৈপুণ্যে দুর্দান্ত জয়ে শুরু রাজশাহীর জাতির পিতাকে জানতে তরুণদের বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন পরিদর্শনের আহবান ডেপুটি স্পিকারের
  • আপডেট টাইম : 01/01/1970 09:53 AM
  • 74 বার পঠিত

জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছেন, ‘পল্লীবন্ধুর শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। চিকিৎসকরা কৃত্রিমভাবে তাঁর শ্বাসকষ্ট দূর করেছেন। বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা কৃত্রিমভাবে সমাধান করা হয়েছে।’

আজ বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জামে মসজিদে পল্লীবন্ধুর সুস্থতা কামনায় দোয়া মোনাজাত শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান জি এম কাদের।

জি এম কাদের বলেন, ‘এরশাদের চিকিৎসার সব রিপোর্ট সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। সিঙ্গাপুরের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বর্তমান শারীরিক অবস্থায় পল্লীবন্ধুকে সিঙ্গাপুরে সমর্থন করেননি।’

তিনি বলেন, ‘গত সাত দিনে এরশাদকে ২৮ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। গত আট ঘণ্টায় আরো আট ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। রক্তের প্লাটিলেট বাড়াতে চেষ্টা করছেন চিকিৎসকরা। সিএমএইচে পল্লীবন্ধুর বিশ্বমানের চিকিৎসা চলছে, আমরা সিএমএইচের চিকিৎসায় সন্তুষ্ট।’

জাপার এই নেতা বলেন, ‘তাঁকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। শ্বাস-প্রশ্বাস কৃত্রিমভাবে দেওয়া হচ্ছে। রাতে ডায়ালিসিসের মাধ্যমে শরীর থেকে অপ্রয়োজনীয় পানি বের করা হয়েছে। রাতে পল্লীবন্ধুর পেট থেকেও প্রায় দুইশ মিলিগ্রাম পানি বের করা হয়েছে। আজ বিকেলে আবারও ডায়ালিসিস দেওয়া হতে পারে। এতে তাঁর শারীরিক অবস্থা কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘গতকালের চেয়ে তাঁকে অনেকটাই সুস্থ দেখাচ্ছে। শ্বাসকষ্ট এখন আর নেই, তিনি এখনো শঙ্কামুক্ত নন।’ সিএমএইচের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে জি এম কাদের বলে,ন ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের উন্নতি অব্যাহত থাকলে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এস এম ফয়সল চিশতী, এ টি ইউ তাজ রহমান, রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা, সাবেক সংসদ মো. সেলিম উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু, নুরুল ইসলাম নুরু, মো. দেলোয়ার হোসেন, হাজি আবু বকর, জহিরুল আলম রুবেল, যুগ্ম মহাসচিব সাবেক সংসদ নুরুল ইসলাম ওমর, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভূঁইয়া, মো. জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, ফকরুল আহসান শাহজাদা, মো. হেলাল উদ্দিন, মো. বেলাল হোসেন, এম এ রাজ্জাক খান, সুমন আশরাফ, রেজাউল করিম, মিজানুর রহমান মিরু, কেন্দ্রীয় নেতা মুহাম্মদ মাসুদুর রহমান চৌধুরী, আবু সাদেক বাদল, এনাম জয়নাল আবেদীন, অ্যাডভোকেট আবু তৈয়ব, আব্দুস সাত্তার, শফিকুল ইসলাম দুলাল, আক্তার হোসেন, মো. দ্বীন ইসলাম শেখ, মো. সোলায়মান সামি, ইকবাল হোসেন তাপস, মোনাজাত চৌধুরী, গাজী এম এ সালাম, এম এ সোবহান, হাজি মো. সাব্বির আলী, মাহবুবুর রহমান খসরু প্রমুখ।

এদিকে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনায় বিশেষ প্রার্থনা হয়েছে রাজধানী শ্যামপুরের শ্রীশ্রী রামকৃষ্ণ গোস্বামী গ্রিধারী বিগ্রহ আখড়ায়। ঢাকা-৪ আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রার্থনায় হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সুজন দের সঞ্চালনায় গীতা পাঠ করে প্রার্থনা পরিচালনা করেন রামকৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত সাধন বৈষ্ণব।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...