ব্রেকিং নিউজ :
গোপালগঞ্জে শেখ সেলিমের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প তিস্তা ব্যারাজে পানি বৃদ্ধি : লালমনিরহাটের নিম্মাঞ্চলে বন্যার আশঙ্কা সিলেটে পানিতে ডুবে ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুসহ সাত জনের মৃত্যু রামাফোসা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট পুন:নির্বাচিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি কমলো, খুলছে ২৬ জুন ভারতের সঙ্গে বৈরি সম্পর্কের জেরে বিএনপি দেশের ক্ষতি করেছে : ওবায়দুল কাদের প্রস্তাবিত বাজেটে জনগণের জীবনযাত্রার উন্নয়নে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে মিয়ানমার থেকে গুলি আসলে পাল্টা গুলি চালানো হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেটে বন্যার কারণে শাবিপ্রবি কর্তৃপক্ষের নতুন নির্দেশনা কোয়ান্টিটি নয়, কোয়ালিটি চিকিৎসা সেবাই মুখ্য : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • প্রকাশিত : ২০২৪-০৫-২৯
  • ২৩৪৩৪৩৫১ বার পঠিত
  • নিজস্ব প্রতিবেদক
কুষ্টিয়া সদর উপজেলার দহোকুলা থেকে মানবপাচার চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে নড়াইল জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। 
গ্রেফতার হওয়া দুই ব্যক্তি হলেন- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার দহোকুলা গ্রামের তরিকুল ইসলাম (৩৫) ও কুবাদ আলী (৪২)। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৮টি মোবাইল ফোন ও ৪০০ অবৈধ মোবাইল  সিম উদ্ধার করা হয়েছে।
বুধবার বিকেলে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের করে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহা. মেহেদী হাসান। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন, তারেক আল মেহেদী, দোলন মিয়া, ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ছাব্বিরুল আলম উপস্থিত ছিলেন। 
পুলিশ সুপার জানান, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন শেখ (২৮) কাজের সন্ধানে লিবিয়ায় গমনের দুইবছর পর মানবপাচার চক্রের কবলে পড়েন। ওই চক্রের ৪-৫ জন সদস্য আল আমিনকে লিবিয়ায় একটি বাড়িতে আটকে রাখে। পরে এক ব্যক্তি তাকে জীবনে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে মোবাইর ফোনে ১০লাখ টাকা দাবি করে। এরপর ওই ব্যক্তি আল আমিনকে মারধর করার অডিও, ভিডিও ও ছবি বাড়ির সদস্যদের কাছে প্রেরণ করে। আল আমিনকে বাঁচাতে তার পরিবারের লোকজন ওই ব্যক্তির দেয়া বিকাশ নাম্বারে তিনবারে মোট ১০লাখ টাকা প্রদান করেন। 
ঘটনা উল্লেখ করে গত ৬ মে, আল আমিনের ছোট ভাই আরিফুর জ্জামান বাদি হয়ে মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর গোয়েন্দা পুলিশ মানবপাচার চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারে তৎপরতা শুরু করে। জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল মঙ্গলবার (২৮ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার দহোকুলা গ্রাম থেকে থেকে ৮টি মোবাইল ফোন ও ৪০০ অবৈধ মোবাইল সিমসহ তরিকুল ও কুবাদকে গ্রেফতার করে। পরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
#
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat