ব্রেকিং নিউজ :
কার্যকরভাবে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য ইরানী কূটনীতিকের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শিগগিরই বিদ্যুৎ পাচ্ছেন চরের অবশিষ্ট মানুষ বাংলাদেশের জলবায়ু প্রকল্পে এএসইএম অংশীদারদের বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর খালেদা জিয়াকে যদি স্লো পয়জনিং করা হয় তাহলে হুকুমের আসামী হবেন ফখরুল : ওবায়দুল কাদের সন্ত্রাসবাদ দমনে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী সিলেটকে চিকিৎসা সেবার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করা হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী চট্টগ্রামে ফায়ার সার্ভিস কর্মীর মৃত্যু করোনায় চট্টগ্রামে নতুন ৫ জন শনাক্ত বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চারিত করেছিল: প্রধানমন্ত্রী
  • আপডেট টাইম : 20/10/2021 08:35 PM
  • 24 বার পঠিত

যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভির্যের মধ্যদিয়ে আজ বুধবার রাজধানীসহ সারাদেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) পালিত হয়েছে।
বিশে^র মুসলিম সম্প্রদায় মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম ও ওফাত দিবস’কে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) হিসেবে পালন করে থাকে। এবার বাংলাদেশের মুসলিম সম্প্রদায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অক্ষুন্ন রাখার ওপর গুরুত্ব দিয়ে এ দিবসটি পালন করে।
এ উপলক্ষ্যে রাজধানী ঢাকায় বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদে আজ বাদ জোহর দিনটির তাৎপর্য তুলে ধরার পাশাপাশি দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মুনাজাত করা হয়।
মুনাজাতের আগে দেশে সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।
এদিকে রাজধানীর নানা জায়গায় জসনে-জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের অংশগ্রহণে খন্ড-খন্ড মিছিল বের হতে দেখা যায়।
দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী প্রদান করেন। পৃথক বাণীতে তাঁরা উভয়েই দেশবাসীসহ বিশ্বের মুসলিম উম্মাহ’র প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানান।
এছাড়াও, তাঁরা দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে সকল ধর্মের মানুষের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
মূলতঃ আরবী সনের ১২ রবিউল আওয়াল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম ও ওফাত দিবস। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এই দিনে জন্ম গ্রহণ করেন। একই দিনে তিনি তাঁর রবের কাছে ফিরে যান।
আরবী মাসের হিসেব শুরু হয় সন্ধ্যা রাত থেকে। এজন্য, ১২ রবিউল আওয়াল শুরু হওয়ার পর অর্থাৎ মঙ্গলবার সন্ধ্যা রাত থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা রাজধানীর বিভিন্ন মসজিদ এবং বসতবাড়িতে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে কোরআন খতম ও জিকির-আজগার শেষে বিশেষ মোনাজাতে নিজ-নিজ পরিবারের সদস্য ও মুসলিম উম্মাহর জন্য মহান রাব্বুল আলামিনের বিশেষ রহমত কামনা করেন।
এদিকে, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে আজ বুধবার ছিল সরকারি ছুটির দিন।
অপরদিকে, ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা) পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে কর্মসূচি অনুযায়ি সকল অনুষ্ঠান করা হচ্ছে এবং হবে। দিবসটি উপলক্ষ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ওপর গুরুত্ব প্রদান করে জাতীয় প্রেস ক্লাবের উদ্যোগেও আজ বুধবার এক অলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়াও, এ দিবস উপলক্ষ্যে দেশের সব বিভাগ, জেলা, উপজেলাসহ সরকারী-বেসরকারি সংস্থাগুলোও মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর জীবনীর ওপর আলোচনা সভা ও মাহফিলসহ বিশেষ কর্মসূচি পালন করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...