ব্রেকিং নিউজ :
শেখ রাসেল অ-১৮ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন ওয়ারি থানা ছুরিকাঘাতে ব্রিটিশ সংসদ সদস্য ডেভিড অ্যামেস নিহত সাম্প্রদায়িক শক্তির পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামাতকে প্রতিরোধের আহবান ওবায়দুল কাদেরের আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ফরম সংগ্রহের আহ্বান রাজধানীসহ সারাদেশে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব চট্টগ্রাম নগরের দেবপাহাড় বস্তিতে আগুনে পুড়েছে ১৫ বসতঘর ঝিনাইদহ মুসা মিয়া বুদ্ধি বিকাশ বিদ্যালয়ে ৪টি ল্যাব উদ্বোধন টিকাগ্রহণকারী বিদেশীরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবে : হোয়াইট হাউজ সরকার মানুষের পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে: রাষ্ট্রপতি
  • আপডেট টাইম : 27/06/2021 01:54 PM
  • 76 বার পঠিত

বরাবর,
মানানীয় প্রধানমন্ত্রী
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়
এলেন বাড়ী, তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।

দৃষ্টি আকর্ষণ: মানানীয় রেল মন্ত্রী, রেল বিষয়ক মন্ত্রনালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

বিষয়: দেশের রাজস্ব বৃদ্ধি স¦ার্থে চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সংযোগ দেয়ার জন্য আবেদন।
জনাব,
যথাযথ সম্মান প্রদর্শন পূর্বক নিবেদন এই যে, আমি নি¤œ স্বাক্ষরকারী দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন ভাবে রাষ্ট্রের রাজস্ব উন্নয়নের জন্য কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করে আসছি। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে হাজার বছরের শ্রেষ্ট বাঙালী বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অদম্য বাংলাদেশ যখন আজ উন্নয়নের অভিযাত্রায় অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে তখন দেশের অগ্রযাত্রা ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে রাজস্ব (ট্যাক্স ও ভ্যাট) বৃদ্ধি একটি অগ্রাধিকার ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিরাজমান আইনি কাঠামোর ভেতর কতিপয় রেল সংযোগ নতুন ভাবে স্থাপনের মাধ্যমে বর্তমান আদায়যোগ্য রাজস্বের (ট্যাক্স ও ভ্যাট) পরিমাণ ও গ্রাহক সেবার মান বহুগুণে বৃদ্ধি করা সম্ভব। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে, দেশরতœ শেখ হাসিনার অনুসারী এক নগণ্য কর্মী হয়ে, একজন দেশপ্রেমিক সচেতন নাগরিক হিসেবে বাংলাদেশের অধিকতর আর্থিক উন্নয়নের জন্য আমার দীর্ঘ বছর যাবৎ কনসালটেন্সী পেশা এর অভিজ্ঞতার আলোকে সরকারের রাজস্ব (ট্যাক্স ও ভ্যাট) বৃদ্ধির লক্ষ্যে নি¤œ লিখিত কিছু প্রস্তাবনা মমতাময়ী মা, মাদার অফ হিউম্যানিটি, মাদার অফ কওমী যার স্বপ্ন শুধু বাংলার মানুষের উন্নয়ন তিনি হলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ যথাযথ বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ ও সু-বিবেচনার জন্য তুলে ধরছি।
চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় আবস্থিত সোনামসজিদ স্থল বন্দর বাংলাদেশর মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য অন্যতম স্থল বন্দর। স্থল বন্দর গুলোর মধ্যে বর্তমানে এই সোনামসজিদ স্থল বন্দরটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর স্থল বন্দর। যেখান থেকে প্রতি বছর সরকার পায় বিপুল পরিমান রজস্ব। রজস্ব আহরণে প্রতি বছর লক্ষমাত্রা অর্জনে ও সক্ষম হয় সোনা মসজিদ স্থল বন্দর। এই সোনা-মসজিদ স্থল বন্দর এর আর ও রাজস্ব লক্ষ্যে এবং আমদানী কারকদের সুবিধার্থে কিছু উন্নয়ন মূলক পরিকল্পনা করা প্রয়োজন। যেমন ঢাকার সাথে যোগাযোগের জন্য যদি চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা শহর থেকে রেললাইন সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত সংযোগ দেয়া খুবই জরুরী বলে আশা করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সমিতির নেতৃবৃন্দ থেকে সাধারন সদস্য পর্যন্ত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সমিতির সকল সদস্যগন একসঙ্গে আশা-প্রকাশ করেন যে, যদি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদর থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেললাইন সংযোগ দেয়া হয়। তাহলে পন্য পরিবহণ খরচ প্রায় অর্ধেকে নেমে আসবে, পণ্য খালাসে জটিলতা থাকবেনা এবং রাজস্ব আরো বৃাদ্ধি পাবে। আমার ঠিকানা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় না হলে ও একজন আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে আমার দেশের রাজস্ব উন্নয়নের স্বার্থে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহর থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সংযোগ দেয়ার জন্য বা খুব দ্রুত স্থাপনের জন্য মমতাময়ী মা, বঙ্গবন্ধু কন্যা, মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা এর নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি। উল্লেখ্য যে মাত্র ৪৫-৫০ কিলোমিটার রেল লাইন সংযোগ এর জন্য যদি সোনামসজিদ স্থল বন্দর এর রাজস্ব প্রায় দিগুন হয় তাহলে উক্ত রাজস্ব রাষ্টীয় কোষাগারে আসবে, যা রাষ্টের জন্য ইতিবাতক একটি অধ্যায়। শুধু মাত্র সড়ক যোগে মালামাল পরিবহন করায় পন্য খালাসে অনেক সময় দেরী হয় এবং পরিবহণ খরচ আনেক বেড়ে যায়, পণ্য আমদানী-রপ্তানীর ক্ষেত্রে সাভাবিক কাজে বিঘœ ঘটে যার প্রভাব অনেক সময় রাজস্ব বৃদ্ধির পড়ে থাকে। তাতে দেখ যায় আমদানী কারক প্রতিষ্ঠানের অর্থনৈতিক ভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়। প্রতিদিন শত শত ট্রাক ভর্তি পণ্য এ স্থল বন্দর দিয়ে আসছে। ফলে বন্দর থেকে গত কয়েক বছরের তুলনায় রাজস্ব ও বেড়েছে।
আমার এক ঘনিষ্টজন বা বন্ধু চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলার বাসিন্দা এবং অত্র সমিতির একজন সম্মানিত সদস্য তার দাওয়াতে আমি গত ১৯/০৩/২০২১ তারিখে রোজ শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ, রমনা, ঢাকায় অথিতি হিসেবে চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা সমিতির চা্পাঁই উৎসব এর এজিএম, আপ্যায়ন, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক আনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকি। আমার অভিজ্ঞতার আলোকে সমিতির নেতৃবৃন্দের আলোচনার মধ্যে যেন চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা সদর থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সংযোগ খুব জুরুরী মনে হয়। তাই রাজস্ব উন্নয়নের স্বার্থে আমি ব্যক্তিগত ভাবে উক্ত রেললাইনটি সংযোগ দেয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাতে বাধ্য হই।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা সমিতির সদস্য বৃন্দ শুধু মাত্র চাঁপাই নবাবগঞ্জ থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সংযোগ দেওয়ার জন্য দাবী করেন নাই, তারা আপনার হস্তক্ষেপের কারণে গতবছর কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারির সময় সাময়িক সময়ের জন্য ম্যাংগো ট্রেন সার্ভিস পেয়েছিল, তাহাতে চাপাই বাসী আম সুলভ মূল্যে ও স্বাচ্ছন্দে বিক্রি করে নগদ টাকা আয় করতে পেরেছে সে জন্য তারা আপনার প্রতি অন্তরের অন্তস্থল থেকে বার-বার কৃতজ্ঞতা ও প্রকাশ করেছেন এবং উক্ত চাঁপাই নবাবগঞ্জ থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রো লাইন সংযোগ দেয়া হলে ঐ এলাকার বিখ্যাত আম বাগান মালিক, ব্যবসায়ী শিবগঞ্জ ও কানসাট আম বাজার সহ অন্যান্য আম ব্যবসায়ীরা খুব সহজেই রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন এলাকায় আম পাঠিয়ে নগদ টাকা উপার্জন করতে পারবে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের বাংঙ্গালির সৌভাগ্য যে, আমরা বাংলাদেশে পেয়েছি বানিজ্যিক ভাবে আমদানি-রপ্তানী করার জন্য তিন প্রকার বন্দর সুবিধা, যেমন: নৌ-বন্দর, স্থল-বন্দর ও বিমান বন্দর। যে সকল বন্দর গুলো প্রতিটি বন্দরই একাধিক রয়েছে, যা রাজস্ব আহরণে একটি বিশাল সুবিধা, যে সুবিধা গুলি বিশে^র অনেক দেশে নাই। যার কারণে আমাদের রাজস্ব আদায় প্রতিবছর প্রায় দিগুন হয়। তাই রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিক বিবেচনা করে সোনামসজিদ স্থল বন্দর থেকে প্রতিবছর লক্ষ্য মাত্রার অধিক বা দিগুন রাজস্ব আদায় হওয়ার স¦ার্থে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদর থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেল লাইন সংযোগ স্থাপন করা খুবই জরুরী।
অতএব জনাবের নিকট আকুল আবেদন রাষ্ট্রের অর্থনৈতিক উন্নয়নের দিকে লক্ষ্য করে এর রাজস্ব বৃদ্ধি করার জন্য চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা সদর থেকে সোনামসজিদ স্থল বন্দর পর্যন্ত রেললাইন সংযোগ দেয়া হয় তাহার বিহীত বিধান করার আজ্ঞা হয়। সদয় ও অবগতির যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুলিপি (জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নহে), ১। সচিব, বানিজ্য মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবলায়, ঢাকা। ২। সচিব (আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ), অর্থ মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা। ৩। সচিব (অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভগ), অর্থ মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা। ৪। সচিব, রেল মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবলায়, ঢাকা। ৫। সচিব (জন নিরাপত্তা বিভগ), স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবলায়, ঢাকা। ৬। সচিব, (স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ) স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বাংলাদেশ সচিবলায়, ঢাকা। ৭। চেয়ারম্যান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, সেগুন বাগিচা, ঢাকা। ৮। গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ ভবন, মতিঝিল, ঢাকা। ১০। চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা), বিডা ভবন, আগারগাঁও, ঢাকা। ১১। চেয়ারম্যান, সকল ব্যাংক, লিজিং কোম্পানী, ফাইন্যান্স কোম্পানী, অর্থ লগ্নী প্রতিষ্ঠন। ১২। ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সকল ব্যাংক, লিজিং কোম্পানী, ফাইন্যান্স কোম্পানী, অর্থ লগ্নী প্রতিষ্ঠন। ১৩। সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক, চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা সমিতি, ইস্টার্ন আরজু, স্যুইট নং-১৩/৫, ৬১ বিজয় নগর, ঢাকা। ১৪। সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক, সোনামসজিদ স্থল বন্দর সি এন্ড এফ এজেন্ট এসোসিয়েশন।

মো: আবুল বরকত সেরনিয়াবাত
কনসালটেন্ট
মোবাইল: ০১৭১১-৩৫১৫৮১

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...