ব্রেকিং নিউজ :
কার্যকরভাবে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য ইরানী কূটনীতিকের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শিগগিরই বিদ্যুৎ পাচ্ছেন চরের অবশিষ্ট মানুষ বাংলাদেশের জলবায়ু প্রকল্পে এএসইএম অংশীদারদের বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর খালেদা জিয়াকে যদি স্লো পয়জনিং করা হয় তাহলে হুকুমের আসামী হবেন ফখরুল : ওবায়দুল কাদের সন্ত্রাসবাদ দমনে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী সিলেটকে চিকিৎসা সেবার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করা হবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী চট্টগ্রামে ফায়ার সার্ভিস কর্মীর মৃত্যু করোনায় চট্টগ্রামে নতুন ৫ জন শনাক্ত বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ডা. মিলন এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: রাষ্ট্রপতি স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. মিলনের আত্মত্যাগ নতুন গতি সঞ্চারিত করেছিল: প্রধানমন্ত্রী
  • আপডেট টাইম : 18/11/2021 09:20 PM
  • 11 বার পঠিত

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শোষিত ও বঞ্চিত মানুষের অধিকার আদায়ে আজীবন সোচ্চার ছিলেন। 
বঙ্গবন্ধু  তাঁর সমগ্র জীবনটা উৎসর্গ করেছিলেন মানুষের কল্যাণে এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু মুজিব ছিলেন বিশ্বের সকল মুক্তিকামী মানুষের অনুপ্রেরণার এক অনিঃশেষ উৎস। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বুধবার জর্ডানে বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য ও ডায়নামিক নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। বঙ্গবন্ধু যে সুখী-সমৃদ্ধ উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্ন দেখেছিলেন সেই স্বপ্নপূরণে শেখ হাসিনা নিরলস কাজ করে চলেছেন। আজ বাংলাদেশ একটি আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে বিশ্বের বুকে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
সিডনি এপারেলস এবং এআরকে গার্মেন্টসের মধ্যে আকাবা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জর্ডানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবহান। জর্ডানে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে বাংলাদেশসহ ভারত, পাকিস্তন ও শ্রীলংকা থেকে আগত শ্রমিকদের মধ্যে এ প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচটির আয়োজন করা হয়।
প্রতিমন্ত্রী স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে উপস্থিত থেকে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট ম্যাচ উপভোগের পাশপাশি খেলা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। বিদেশের মাটিতে এ ধরনের ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজনের জন্য তিনি বাংলাদেশ দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান। এছাড়াও প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিদেশ থেকে তাদের কষ্টার্জিত রেমিট্যান্স পাঠানোর মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতিও প্রতিমন্ত্রী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
প্রবাসী বাংলাদেশিরাসহ জর্ডানে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর (লেবার) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, কাউন্সিলর ও হেড অব চ্যান্সেরি মোহাম্মদ বশিরসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...