ব্রেকিং নিউজ :
দীর্ঘসূত্রিতা, অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির সাথে কুয়েতের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ দেশকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যেতে তৈরি হও : নতুন প্রজন্মের প্রতি প্রধানমন্ত্রী বন্যার্ত মানুষের চিকিৎসা সেবায় মাঠে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ সময়োচিত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারলে প্রতিষ্ঠান দ্রুত এগিয়ে যাবে : বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী দক্ষতা অর্জনে উন্নত প্রশিক্ষণের বিকল্প নাই : বিএসএমএমইউ উপাচার্য সেবা নিতে এসে একজনও যেন বিমুখ না হন : শিক্ষামন্ত্রী টিপু হত্যা : শুটার মুসার দায় স্বীকার এসএমই খাতকে শক্তিশালী করতে সরকার সহযোগিতা দিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী প্রথম ৮ ঘন্টায় ১৫ হাজার ২০০ যানবাহন পারাপার
  • আপডেট টাইম : 20/06/2022 03:19 PM
  • 5 বার পঠিত

ভারী বর্ষণে খাগড়াছড়ির নিম্নাঞ্চল এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে খাগড়াছড়ি সদর, দীঘিনালা, মানিকছড়িসহ  বেশ কিছু উপজেলায় অতি বর্ষণের কারণে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে।
এ ছাড়া মেরুং ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রাম পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। মেরুংয়ের মাইনী নদী তীরবর্তী ও আশপাশের অর্ধশতাধিক পরিবার ইতোমধ্যে বসতবাড়ি ছেড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছেন।
এদিকে খাগড়াছড়ি পৌরসভার শালবন, কুমিল্লাটিলাসহ  পাহাড় অধ্যুষিত এলাকায় পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে থাকা পরিবার গুলোকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে কাজ শুরু করেছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকলে খাগড়াছড়ির চেঙ্গী, মাইনী ও ফেণী নদীর পানি বেড়ে বন্যার শঙ্কা রয়েছে।
খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়রসহ স্থানীয় জপ্রতিনিধিরা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করেছেন। 
খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থাকে (বাসস) জানান, ভারী বর্ষণে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা আমরা পরিদর্শন করে সেখানে সম্মিলিতভাবে কাজ শুরু করেছি। এছাড়া পাহাড় ধসের শঙ্কা মাথা রেখে পৌরসভার বিভিন্ন  এলাকায় কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এ ছাড়া দুইটি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে এবং মাইকিং করে জনগণকে সর্তক করা হচ্ছে বলে জানান তিনি

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...