ব্রেকিং নিউজ :
ভোলায় ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ সফল করতে চলছে প্রচার-প্রচারণা ধর্মকে ব্যবহার করে কেউ যাতে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে না পারে সেজন্য সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান রাষ্ট্রপতির বিশ্ব শিক্ষক দিবসে সকল শিক্ষকের প্রতি তথ্যমন্ত্রীর শ্রদ্ধা জনগণই হচ্ছে আমাদের দেশের সবচেয়ে বড় শক্তি : পরিকল্পনা মন্ত্রী কুমিল্লায় অনিয়মের অভিযোগে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপির মুখে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের কথা শোভা পায় না : ওবায়দুল কাদের স্মার্ট টেকনোলজি দেশকে আরও গতিশীল করবে : জাহিদ ফারুক দেশে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে দু’জনের মৃত্যু আইসিসির ‘মাস সেরা’ পুরস্কারে মনোনীত বাংলাদেশের নিগার
  • আপডেট টাইম : 11/08/2022 01:35 AM
  • 31 বার পঠিত

সংসদের সরকারী হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি বিটিসিএল এর ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের এবং বিটিআরসি'র ২০১১-১২ অর্থ বছরের বার্ষিক হিসাবে অডিট আপত্তি যথাযভাবে নিস্পত্তির সুপারিশ করেছে। 
কমিটির  সভাপতি মো: রুস্তম আলী ফরাজীর সভাপতিত্বে আজ সংসদ সচিবালয়স্থ কেবিনেট কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় এ সুপারিশ করা হয়।
কমিটির সদস্য ড. মহীউদ্দিন খান আলমগীর, আবুল কালাম আজাদ, মো: আব্দুস শহীদ, মো: শহীদুজ্জামান সরকার, র, আ, ম, উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, আহসানুল ইসলাম (টিটু) ও মো: জাহিদুর রহমান সভায় অংশগ্রহণ করেন।
সভায় ডাক, টেলিযোগাযোগ, বিজ্ঞান, তথ্য ও প্রযুক্তি অডিট অধিদপ্তর কর্তৃক ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) এবং বিজ্ঞান প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনাধীন ৯টি স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের হিসাবে অডিট আপত্তি নিয়ে আলোচনা করা হয়। হিসাবের ওপর বাংলাদেশ কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল এর কমপ্লায়েন্স অডিট রিপোর্ট এ অন্তর্ভুক্ত অডিট আপত্তির অনুচ্ছেদ নং-১, ২,৩, ৪ ও ৫ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। 
এছাড়া ডাক, টেলিযোগাযোগ, বিজ্ঞান, তথ্য ও প্রযুক্তি অডিট অধিদপ্তর থেকে  ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ডাক, টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীনস্থ বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) রমনা, ঢাকা অফিসের ২০১১-১২ অর্থ বছরের হিসাবে অডিট আপত্তি নিয়ে আলোচনা করা হয়। সভায় এ হিসাবের ওপর বাংলাদেশের কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেলের অডিট রিপোর্ট ২০১২-২০১৩ এ অন্তর্ভুক্ত অডিট আপত্তির অনুচ্ছেদ নং- ১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৬ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
সভায় জাতীয় সংসদে পেশকৃত সর্বশেষ আর্থিক হিসাব ২০১৫-২০১৬ সহ কমিটিতে আলোচিত ইতঃপূর্বের আর্থিক হিসাবসমূহের উপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
১৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ তারিখে শূন্য স্থিতি ধরে পরবর্তী প্রতিটি অর্থবছরে বাজেটের বিপরীতে ব্যয়ের হিসাব, সংযুক্ত তহবিল (রাজস্ব ও মূলধন), ঋণ ও অগ্রিম এবং সরকারী হিসাবের সমাপনী স্থিতি, বাজেট এবং প্রত্যয়নকৃত আর্থিক হিসাবের বিবরণ এবং এর পুনঃমিলিকরণের গরমিল উল্লেখপূর্বক কোন তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য থাকলে তা উল্লেখসহ এর ধারাবাহিক প্রভাব সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।
সভায় কমিটির ৮০ ও ৮১ তম বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়। সভায় উত্থাপিত অডিট আপত্তিগুলো পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়।
অর্থ মন্ত্রণালয়, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেড এবং মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দসহ সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...